বরের ১২, কনের ১১: বিয়ের সহায়তায় আ.লীগ নেতা-মেম্বার

ballo-400x250ডেস্ক রিপোর্ট : বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সরকার যখন নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে ঠিক সে সময়ে ভোলার চরফ্যাশনের বিচ্ছিন্ন দ্বীপ ঢালচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুস সালাম হাওলাদারের সহায়তায় বাল্য বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

তবে এ বিয়েতে শধু কনেই অপ্রাপ্ত বয়স্ক নয়, বরও। এর মধ্যে বরের বয়স ১২ বছর আর কনের ১১ বছর। এ বিয়ে সম্পন্ন হওয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

স্থানীয়রা জানায়, ঢালচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুস সালাম হাওলাদার ও ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোস্তফা মেম্বারের সহায়তায় স্থানীয় আনন্দ বাজার জামে মসজিদের ইমাম বেলাল মুন্সি শনিবার রাতে এ বিয়ে সম্পন্ন করেন। এতে ঢালচর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড আনন্দ বাজার এলাকায় দিন মজুর মোশারফের শিশুকন্যা শাবনুরের (১১) সঙ্গে একই এলাকার জাহাঙ্গীরের ছেলে হারুনের (১২) বাল্যবিয়ে সম্পন্ন হয়।

 

ঢালচর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম পাটোয়ারী জানান, এ ঘটনার বিষয়ে জেনে আমি প্রশাসনকে জানিয়েছি। তারা তাৎক্ষনিক বর-কনে উভয়কে তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে গেছেন।

 

তবে, অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়ায় তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

 

এদিকে, ঢালচর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মিজানুর রহমান জানান, খবর পেয়ে বর-কনে উভয়কে তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে এলেও পরিবর্তীতে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার নির্দেশে তাদেরকে স্ব-স্ব অভিভাবকের জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

Categories: বরিশাল