শ্রীমঙ্গলে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭ তম ব্যাচের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত

শ্রীমঙ্গলে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭ তম ব্যাচের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত

ষ্টাফ রিপোর্টার,মো:জহিরুল ইসলাম,মৌলভীবাজার ; মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার দ্বারিকা পাল মহিলা কলেজ স্টাডি সেন্টারে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এইচ.এস.সি প্রোগ্রামের ১৭ তম ব্যাচের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ শুক্রবার ১৫ ডিসেম্বের সকাল ১০ টায় মো: আরিফুল ইসলাম এবং মোছাম্মৎ তানজিনা আক্তারের সঞ্চালনায় কলেজ মিলনায়তনে এইচ.এস.সি প্রোগ্রামের সমন্বয়কারী সহকারী অধ্যাপক রজত শুভ্র চক্রবর্তী’র সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বি.এ.এবং বি.এস.এস প্রোগ্রামের সমন্বয়কারী প্রভাষক অনিরুদ্ধ সেনগুপ্ত,জীববিদ্যা বিভাগের প্রভাষকজলি পাল,রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক প্রদীপ কুমার বিশ্বাস, ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক গোলাম মুর্ত্তজা,তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রভাষখ চৈতন্য প্রসাদ রায় ।
দুই পর্বের অনুষ্ঠানে প্রথম পর্বে ছিল আলোচনা অনুষ্ঠান ও নবীন শিক্ষার্থীদের বরণের আনুষ্ঠানিকতা আর দ্বিতীয় পর্বে ছিল মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে নৃত্য পরিবেশন করেন জাতীয় ভাবে পুরস্কার প্রাপ্ত তিনটি নৃত্য শিল্পী গ্রুপ। বিশেষ আকর্ষণ ছিল কেয়া সিনহা ও তাঁর দলের মনিপুরী নৃত্য এবং নৃত্যশিল্পী সুব্রত দাশ’র গ্রপের সাঁওতাল নৃত্যের পরিবেশনা। এছাড়া দেশাত্ববোধক নৃত্যও ছিল উল্লেখ করার মত। তাছাড়াও অতিথিদের মধ্য থেকে জীববিদ্যা বিভাগের প্রভাষক জলি পাল এবং ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী মিলি বেগম সহ শিক্ষার্থীদের পরিবশেনায় মনোমুগ্ধকর সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়।

সভাপতি তাঁর বক্তব্যে বলেন সরকারের সদিচ্ছার কারণেই আজ জ্ঞানার্জনের জন্য আগ্রহী শিক্ষার্থীগণ এবয়সে এসেও জ্ঞানার্জনের এই চমৎকার সুযোগ পাচ্ছেন। এখান থেকে যথাযথ শিক্ষা লাভ শেষে সনদ সংগ্রহ করে প্রত্যেক শিক্ষার্থীই তাদের স্ব স্ব কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতির সুযোগ পেতে পারেন। তবে ভাল ফলাফলের জন্য সবাইকে নিয়মিতভাবে শ্রেণীর উপস্থিত থেকে পড়াশুনা চালিয়ে যেতে হবে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সমন্বিত প্রচেষ্ঠার মাধ্যমেই দক্ষ মানব সম্পদ গড়ার কাজ তড়ান্বিত হতে পারে বলেও তিনি মনে করেন।