চক্ষু বিহীন মানব জীবন ৯০ ভাগই অপূর্ণ -লায়ন মোঃ কবির উদ্দিন ভূঁইয়া এম,জে,এফ

এবিএম আতিকুর রহমান বাশার : চক্ষু বিহীন মানব জীবন ৯০ ভাগই অপূর্ণ। কারন হাত, পা, কান, নাক সহ একজন সুস্থ্য মানুষের চক্ষু না থাকলে তার জীবনের সুখ, স্বাচ্ছন্দ, জীবন চলায় অনুভব ছাড়া সবই অন্ধকার থাকে। জন্মান্ধ ছাড়াও পুষ্টির অভাব, দূর্ঘটনা সহ নানা কারনে আমাদের সমাজে অনেকেরই দেখার শক্তি হারিয়ে ফেলে। এক্ষেত্রে বিত্তবানরা নানাভাবে তার পূর্ণতা আনতে পারলেও অর্থাভাবে অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠী সে ক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকতে হচ্ছে। তাই আমরা সেই দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে আলো দেখাতে নানা কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়ে চোখের নানা সমস্যা দূর করা সহ চোখে ছানিপড়া রোগীদের অপারেশনের মাধ্যমে, ল্যান্স্ পড়িয়ে, চশমা পড়িয়ে চোখের জ্যোতি ফিরিয়ে আনতে সহায়তা করে আসছি। আমরা চিকিৎসা সেবা নিতে আসা দরিদ্র রোগীদের চোখের চিকিৎসা সেবাদানকালে ব্যবস্থাপত্র, থাকা, খাওয়া, ঔষধ বিনামূল্যে সরবরাহ করে আসছি।
শনিবার দিনব্যাপী দেবীদ্বার পৌর এলাকার বানিয়াপাড়া-হামলাবাড়ি ‘জালাল উদ্দিন আহমেদ ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজ’র উদ্যোগে এবং চট্রগ্রাম লায়ন্স ফাউন্ডেশন’র সহযোগীতায় দুঃস্থ ও দরিদ্র রোগীদের চক্ষু চিকিৎসা সেবাদানে ৩০ তম ‘চক্ষু ক্যাম্প’ উদ্ভোধনকালে লায়ন্স চট্রগ্রাম জেলার সাবেক গভর্ণর, চট্রগ্রামস্থ কুমিল্লা জেলা সমিতি ও দেবীদ্বার থানা কল্যান সমিতির সভাপতি লায়ন মোঃ কবির উদ্দিন ভূঁইয়া এম,জে,এফ প্রধান অতিথির বক্তব্যদানকালে তিনি ওই বক্তব্য তুলে ধরেন।
সাবেক অগ্রনী ব্যাংক কর্মকর্তা ও ‘জালাল উদ্দিন আহমেদ ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি মোঃ ফরিদ উদ্দিন আহমেদ’র সভাপতিত্বে এবং মুরাদনগর উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মোঃ কবির আহমেদ’র সঞ্চালনায় উক্ত ৩০ তম ‘চক্ষু ক্যাম্প’ উদ্ভোধনী সভায় সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি লায়ন্স চট্রগ্রাম জেলার সাবেক গভর্ণর চট্রগ্রামস্থ কুমিল্লা জেলা সমিতি ও দেবীদ্বার থানা কল্যান সমিতির সভাপতি লায়ন মোঃ কবির উদ্দিন ভূঁইয়া এম,জে,এফ ছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেবীদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রবীন্দ্র চাকমা, অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন, দেবীদ্বার উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মোঃ আবু তাহের, দেবীদ্বার শিশু পরিবারের সাবেক তত্বাবধায়ক মোঃ জহীরুল ইসলাম সরকার, চট্রগ্রাস্থ দেবীদ্বার জনকল্যাণ সমিতির সহ-সভাপতি মোঃ মনিরুজ্জামান, আব্দুর রহিম, উপদেষ্টা মোঃ সফিকুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম,এ,জহিরুল আলম, লায়ন্স ক্লাব অব চট্রগ্রাম সিটির সভাপতি লায়ন গাজী মোঃ শহীদুল্লাহ, দেবীদ্বার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ’র সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আব্দুস সামাদ, ন্যাপ নেতা বীর গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা মোঃ সহিদুল্লাহ সরকার, দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান একেএম সফিকুল আলম কামাল, ‘জালাল উদ্দিন আহমেদ ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজ’র প্রধান শিক্ষক দুলাল দাস, সহকারী শিক্ষক মাওলানা মোঃ জহীরুল ইসলাম।
মঞ্চে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, লায়ন্স ক্লাব অফ চট্রগ্রাম সিটির গভর্ণর এডভাইজার লায়ন হাবিবুর রহমান, সেক্রেটারী লায়ন রাজেস চৌধূরী, প্রাক্তন সভাপতি লায়ন কামরুল ইসলাম পারভেজ, প্রকৌশলী লায়ন মোঃ শাহ আলম, সাধারন সম্পাদক লায়ন মোঃ ফজলুল হক ভূঞা, চট্রগ্রাস্থ দেবীদ্বার জনকল্যাণ সমিতির মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, সহ-সাধারন সম্পাদক মোঃ জসীম উদ্দিন সরকার, কোষাধ্যক্ষ মোঃ মোশাররফ হোসেন খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মোস্তফা কামাল, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোঃ আব্দুল হালিম, ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ এস,এম,শাহজাহান, প্রচার সম্পাদক মোঃ আলী সরকার, সদস্য আনোয়ারুল হক, মো: শরিফুল আলম, প্রধান সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মোসলেহ উদ্দিন প্রমূখ।
দিনব্যাপী ২৮০ জন চক্ষু রোগীকে চিকিৎসা সেবা প্রদান ও বিনামূল্যে ঔষধ প্রদান করা হয় এবং ৬৫ জন ছানিপড়া চক্ষু রোগীকে অপারেশনের জন্য চট্রগ্রাম লায়ন চক্ষু হাসপাতালে পাঠানো হয়। এসময় চিকিৎসা সেবা প্রদানে চিকিৎসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, চট্রগ্রাম লায়ন চক্ষু হাসপাতালের সহকারী কনসাল্টেন্ট ডাঃ কথন দাস, আফতালমিক প্যারামেটিকস্ ডাঃ সাইফুল আলম, ডাঃ অরবিন্দ চৌধূরী, সহকারী প্যারামেটিকস্ খোকন দাস, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, ক্যাম্প কো-অর্ডিনেটর মোঃ জসিম উদ্দিন, দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স’র সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডাঃ সামসুন্নাহার, উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডাঃ এনামুল হক চৌধূরী প্রমূখ।