কুড়িগ্রামে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭.৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস গত ২৪ ঘন্টায় সদর হাসপাতালে শিশুসহ ২ জনের মৃত্যু

এমডি আবু জাফর, বিশেষ প্রতিনিধিঃঃ কুড়িগ্রামে গত ৯ দিনের অব্যাহত শৈত্য প্রবাহে জনজীবনে স্থবিরতা বিরাজ করছে। কুড়িগ্রামের কৃষি আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক জাকির হোসেন জানান, বুধবার জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৭.৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

কুড়িগ্রামের হাসপাতাল গুলোতে বাড়ছে শীত জনিত রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা। কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে গত ২৪ ঘন্টায় শীত জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে এক শিশুসহ ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। দিনের কিছু সময় সুর্যের দেখা মিললেও বাকী সময় কুয়াশায় আচ্ছন্ন থাকছে এ জনপদ। দিনের বেলায়ও হেডলাইট চালিয়ে চলছে গাড়ী।

ঘন কুয়াশার সাথে হিমেল হাওয়া শীতের তীব্রতা বাড়িয়ে দিচ্ছে আরো। ফলে শ্রমজীবি মানুষেরা কাজে বের হতে পারছে না। এ অবস্থায় বিলম্বিত হচ্ছে চাষাবাদ। গরম কাপড়ের অভাবে দুর্ভোগ বেড়েছে স্বল্প আয়ের মানুষজনের। রেহাই পাচ্ছে না গবাদি পশুরাও। কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার হলোখানা ইউনিয়নে সারোডোব গ্রামের মজিবর রহমান জানান, এই ঠান্ডায় জমিতে কাজ করতে পারছি না।

গরম কাপড় না থাকায় ছেলে-মেয়ে নিয়ে কষ্টে দিন পার করছি। এপর্যন্ত জেলা প্রশাসন থেকে সরকারীভাবে বরাদ্দকৃত ৫৭ হাজার কম্বল বিতরন করা হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল।##