প্রচারণার মাঠে কৌশলী বিএনপি

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) উপনির্বাচনে কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠনের মাধ্যমে প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাবে বিএনপি। পাশাপাশি প্রচারণার মাঠে থাকবে পেশাজীবীদের টিম। দলের উচ্চ পর্যায়ের একটি কমিটি পুরো নির্বাচনী কর্মকাণ্ড তদারক করবেন। বিএনপির আনুষ্ঠানিক এ প্রচারণা শুরু হবে নির্বাচন কমিশন চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর। তার আগে প্রতিটি থানা ও ওয়ার্ডে বিএনপি, অঙ্গদল ও জোটের নেতারা অনানুষ্ঠানিক বৈঠকের মাধ্যমে প্রস্তুতি নেবে। নির্বাচনী প্রচারণার কৌশল নির্ধারণ ও টিম গঠনসহ সার্বিক বিষয়ে আজ জরুরি বৈঠক ডেকেছে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি।

দলটির দায়িত্বশীল সূত্র এমন তথ্য জানিয়েছে। তবে গতকাল দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ ব্রিফিং থেকে তাবিথ আউয়ালের পক্ষে সমর্থন ও ভোট দিতে ২০দলীয় জোটের শরিক দলসহ নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দলটি। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ এ আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, অত্যন্ত সহৃদয়, সদালাপী, নম্র ও অন্যের প্রতি আন্তরিক তাবিথ আউয়াল জনগণের সঙ্গে মিশে যেভাবে কৃতিত্বের সঙ্গে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ করেছেন তাতে তিনি আধুনিক ঢাকা গড়তে সক্ষম হবেন বলেই জনগণ বিশ্বাস করে। জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির পক্ষ থেকে আমি ডিএনসিসি নির্বাচনে তাবিথ আউয়ালের পক্ষে ২০দলীয় জোটসহ সাধারণ জনগণকে তার পাশে দাঁড়াতে ও ভোট দিতে আহ্বান জানাচ্ছি।

এদিকে নির্বাচন কমিশন থেকে আজ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করবেন ধানের শীষের প্রার্থী তাবিথ আউয়াল। আগামীকাল মনোনয়নপত্র দাখিল করবেন তিনি। তারপর শুরু করবেন আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি। দলের মনোনয়ন বোর্ডে সাক্ষাৎকারের পর সোমবার রাতে মেয়র পদে আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন পেয়েছেন তাবিথ আউয়াল। দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পরদিন গতকাল দুপুরে তেজগাঁওয়ে নিজের নির্বাচনী কার্যালয়ে যান তিনি।

সেখানে আগে থেকেই ভিড় করছিলেন ঢাকা মহানগর বিএনপির বেশকিছু নেতাকর্মী। কার্যালয়ে সমাগত নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এর আগে সোমবার রাতে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পর প্রতিক্রিয়ায় তাবিথ আউয়াল বলেন, বিএনপি একটি বড় রাজনৈতিক দল। বিএনপির নেতৃত্বে রয়েছে ২০দলীয় জোট। তারা যে আমার ওপর আস্থা ও বিশ্বাস রেখেছে তা আমাকে অনুপ্রাণিত করেছে। কেননা দেশনেত্রী খালেদা জিয়া অনেক আগেই বলেছেন, আগামীর বাংলাদেশ হবে তরুণদের। সেই ধারাবাহিকতায় দেখতে পাচ্ছি উনি (খালেদা জিয়া) উনার প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করেছেন। তাবিথ আউয়াল বলেন, আগামীতেও আমরা দেখবো অনেক তরুণ এই রাজনৈতিক দলের মাধ্যমেই দেশসেবাতে যোগ দিতে পারেন। এই মুহূর্তে এর চেয়ে বেশি বলার নেই। কারণ আপনারা সকলেই জানেন, আমরা নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অগ্রগতির দিকে যাচ্ছি।

ডিএনসিসি নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই মুহূর্তে আমি আমার মন্তব্য রিজার্ভ রাখতে চাচ্ছি। কারণ নির্বাচন হবে কিনা তা নিয়ে একটি মেটার সাবজুডিশন আছে। আমি নিজে এখনো বিধিমালা মোতাবেক অফিসিয়াল প্রার্থী হতে পারিনি। আর এরকম প্রচার করে আমি নির্বাচনী বিধিমালাও ভঙ্গ করতে চাচ্ছি না। তাই দয়া করে একটু অপেক্ষা করুন। আমি শিগগিরই আপনাদের মাঝে উত্তর নিয়ে আসবো। তাবিথ বলেন, নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা দেয়ার পর থেকে আমি প্রার্থী হিসেবে বেশকিছু প্রতিশ্রুতি ও প্রচার শুরু করবো।

বিএনপি চেয়ারপারসন কার্যালয় সূত্র জানায়, নির্বাচন কমিশন প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করার পর জোটের বৈঠক ডাকা হবে। সে বৈঠকে বিএনপি ও জোট নেতাদের সমন্বয়ে কিছু প্রচার টিম গঠন করা হবে। যে টিমকে যেখানে দায়িত্ব দেয়া হবে তারা সেখানে প্রচারণা চালাবেন। তবে শরিক দলের শীর্ষ নেতারা পুরো ডিএনসিসিতে প্রচারণায় অংশ নেবেন। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক বলেন, জোটের বৈঠকে ডিএনসিসি উপনির্বাচন নিয়ে জোটের শীর্ষ নেত্রীকে প্রার্থী চূড়ান্ত করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। প্রার্থী চূড়ান্ত হয়েছে। এখন আমরা সমন্বয়ের অপেক্ষায় আছি। সমন্বয়ের পর আমাদের যে এলাকায় দায়িত্ব দেবে আমরা সে এলাকায় সময় দেবো। আমাদের পরিচিতি ও প্রভাব পূর্ণভাবে কাজে লাগাবো। বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, কয়েক স্তরের কমিটির মাধ্যমে ডিএনসিসি নির্বাচনে ধানের শীষের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাবে বিএনপি। আপাতত মহানগরের প্রতিটি নির্বাচনী আসনে বিগত নির্বাচনের দলীয় প্রার্থীসহ সিনিয়র নেতারা থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিট পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা শুরু করেছেন।

নির্বাচন কমিশন যাচাই-বাছাই শেষে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর নির্বাচনী বিধি মেনে সর্বাত্মকভাবে প্রচারণায় ঝাঁপিয়ে পড়বে বিএনপি, অঙ্গ দল ও জোটের নেতাকর্মীরা। ডিএনসিসির আওতাধীন ঢাকা-১২ আসনে নবম জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি দলীয় প্রার্থী ছিলেন মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন। তারপর থেকেই মহানগর উত্তরের তেজগাঁওভিত্তিক সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের নিউক্লিয়াস তিনি। বর্তমানে দলের সহ অর্থবিষয়ক সম্পাদক ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সহ-সভাপতি সাহাব উদ্দিন বলেন, সোমবার রাতে মেয়র পদে দলের মনোনয়ন চূড়ান্ত হওয়ার পর তেজগাঁও বিএনপির সিনিয়র নেতারা একটি বৈঠক করেছি। ধারাবাহিকভাবে অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে বসবো। মহানগর কমিটির নির্দেশনা পাওয়ার পর যথাযথ সময়ে থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিট পর্যায়ের কমিটি গঠন ও সমন্বয়ের মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবো। বিগত নির্বাচনের চেয়েও সর্বাত্মকভাবে এবারের নির্বাচনে মাঠে নামবো। ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির দপ্তর সম্পাদক এবিএমএ রাজ্জাক বলেন, ডিএনসিসি উপনির্বাচনে দলের মনোনয়নপ্রাপ্ত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল নির্বাচন কমিশনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার দিন বিপুল নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে শোডাউন দেয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে মহানগর উত্তর বিএনপি।

ওদিকে ডিএনসিসিতে নতুন সংযুক্ত ওয়ার্ডগুলোর নির্বাচনে কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিয়েছে বিএনপি। গণতান্ত্রিক রীতিনীতি অনুসরণ করে কাউন্সিলর পদে মনোনয়ন প্রক্রিয়ার এ উদ্যোগে প্রার্থীসহ ও দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে প্রাণচাঞ্চল্য। মহানগর উত্তর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান, সিনিয়র সহ-সভাপতি মুন্সি বজলুল বাসিত আঞ্জু, ঢাকা মহানগর বিএনপি নেতা আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, আতিকুল ইসলাম মতিন, এজিএম শামসুল হক, এম কফিল উদ্দিন, শামীম পারভেজ, মাহফুজুর রহমান চেয়ারম্যান, আতাউর রহমান চেয়ারম্যান, তহিরুল ইসলাম তুহিন, মাহাবুবুল করিম জাফর, আব্দুল্লাহিল বাকী ও এবিএমএ রাজ্জাকের সমন্বয়ে গঠিত মনোনয়ন বোর্ড সোমবার ও মঙ্গলবার শতাধিক প্রার্থীর সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। মহানগর উত্তর বিএনপির সাক্ষাৎকার বোর্ড কাউন্সিলর প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন জমা দেবেন বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তরে। পরে কেন্দ্রীয় দপ্তর দলের মনোনয়নপ্রাপ্ত কাউন্সিলর প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করবে। অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)তে নতুন সংযুক্ত ১৮টি সাধারণ ওয়ার্ড ও ৮টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ১৬৫টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি করেছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি। আজ ডিএসসিসির ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে সাক্ষাৎকার দেবেন বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। মানবজমিন