বাগেরহাটে মিছিলের প্রস্তুতিকালে জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি, আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক’সহ বিএনপির পাঁচ নেতা আটক।

জাহিদুর রহমান মিঠু, বাগেরহাট থেকেঃঃ বাগেরহাটে বিক্ষোভ মিছিলের প্রস্তুতিকালে জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এ্যাডঃ তরফদার আসাদুজ্জামান ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক’সহ বিএনপি’র পাঁচ নেতাকে পুলিশ। শুক্রবার বিকেলে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাগেরহাট শহরতলীর পুরাতন কোর্টের মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট এলাকায় দলের নেতাকর্মীরা জড়ো হলে পুলিশ সেখান থেকে তাদের আটক করে। আটককৃতদের থানায় নিয়ে রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।

আটককৃতরা হলেন, বাগেরহাট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা বিএনপির ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক আলতাফ হোসেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এ্যাডভোকেট তরফদার আসাদুজ্জামান, জেলা বিএনপি’র আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান, রামপাল উপজেলার মল্লিকেরবেড় ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির খান ও জেলা শ্রমিকদলের প্রচার সম্পাদক লোকমান হোসেন।

এ বিষয়ে বাগেরহাট জেলা বিএনপি’র সভাপতি এম এ সালাম সংবাদকর্মীদের বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়ার প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি অনুয়ায়ি জেলা বিএনপি শহরে বিক্ষোভ মিছিলের প্রস্তুতি নিতে দলের নেতাকর্মীরা পুরাতন কোর্টের মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট এলাকায় জড়ো হন। এসময় আকষ্মিকভাবে সেখানে পুলিশ এসে ধাওয়া করলে নেতাকর্মীরা গ্রেপ্তার এড়াতে পালানোর চেষ্টা করে। পুলিশ সেখান থেকে ধাওয়া করে বিএনপির পাঁচ নেতাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

বিএনপির শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে বাঁধা দিয়ে পুলিশ রাজনৈতিক দলের গনতান্ত্রিক অধিকার হরণ করছে বলেও সংবাদ মাধ্যমের কাছে অভিযোগ করেন বাগেরহাট জেলা বিএনপি’র সভাপতি এম এ সালাম। এ সময় তিনি এই গ্রেপ্তারের নিন্দা জানিয়ে দলের নেতাদের অবিলম্বে নি:শর্ত মুক্তির দাবি করেন। এদিকে বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাতাব উদ্দিন বলেন, শুক্রবার বিকেলে মিছিল করতে জেলা বিএনপির কিছু নেতা শহরতলীর পুরাতন কোর্ট এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা মার্কেটের সামনে জড়ো হওয়ার খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গিয়ে পাঁচ নেতাকে আটক করে। বিএনপির মিছিলের কারনে শহরের শান্তি শৃঙ্খলা বিঘ্ন ঘটার আশংকায় তাদের আটক করা হয়েছে। ওই নেতাদের থানায় রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।##