কবি বিদ্যুৎ ভৌমিকের ভুতের ছড়া ভুতুমপুরের  ভূতের  মেলা 

এমডি আবু জাফর, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

ভুত সম্পর্কে আমার কথা আমি কিন্তু ভুত বা অপদেবতা বিশ্বাস করিনা ! এই “ভুত”-নামক অদেখা বিষয়টা নিয়ে আমার ধারণা নেই বলা চলে । ভুত”-কে আমি দেখিনি , এবং ভুত”-কে যে বা যারা দেখেছেন তাদের-কেও     আমি দেখিনি ! তবে এই বিষয়টা নিয়ে ছোট বেলা থেকে প্রচুর বই-পত্র আমি পড়েছি । একটা  কথা এখানে না জানিয়ে পারছি না , আমার দাদামশাই নাকি ভুত দেখেছিলেন ! এটা আমার শোনা  কথা । আমি এই বিষয়টা নিয়ে অনেক জায়গায় লিখেছি , তা বলে এই নয় আমি ভুত বিশ্বাস করি । যাই হোক ,– শিশুসাহিত্যের জন্যে “দৈনিক লন্ডন বাংলা” -কে একটা মজার ছড়া উপহার দিলাম  এবং ছোটোরা যাতে এই কবিতাটা আবৃত্তি করতে পারে সেদিকটা ভেবে কবিতাটা অর্থাৎ ছড়া-টা   নিবেদন করলাম ***  কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক

                                                  ভুতুমপুরে ভুতের মেলা                                                                                                                                                                                                                                                                  

  কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক 
ঈশানকোনে  সাঁঝবেলাতে দমকা হাওয়া বইছিল
মামদো ভূতের পিসশাশুড়ি কী যেন কী কইছিল
তাইনা  শুনে  পেতনী  মাসি  ঠ্যাং  ছড়িয়ে জুড়লো হাসি
শ্যাওড়া  গাছের  পেতনী  মাসি  পেঁচার  দিদির  সই  ছিল  !
#
স্কন্দকাটার  ভাগনী  জামাই  কাজকর্মে  দিয়ে  কামাই
হপ্তা  শেষে  ক্যাওড়া  তলায়  টপ্পা – গজল  গাইছিল —
বিদঘুটে  এক  পোশাক  পড়ে  বিলকান্দার  একানোড়ে
ভূতগুলোকে  ধাপ্পা  দিয়ে  সাতশো  মোহর  চাইছিল  !
#
রাত দুপুরে  কি কারণে  কান্ড  কিসব  ঘটছিল
কোত্থেকে  এক  উটকো  ভূতের  এই  গ্রামেতেই  ঢুকছিল —
ভূতের  দোসর  স্কন্দ  নাকি ,  সবার  চোখে  দিয়ে  ফাঁকি
সে  নাকি  তাঁর  মিশর  দেশের  সুদান  নাসের  ভাইছিল  !
#
তারায়  ভরা  চাঁদনী  রাতে  মামদো – পেঁচো  হাসছিল
ভুতুমপুরের  পচা  ডোবায়  দুজন  মিলে  নাইছিল ****
ওই যে  সেথায়  নিঝুম  রাতে,  কেউ  ছিলনা  আমার  সাথে
ওদের  দেখে  বাঁশের  ঝাড়ে  চোখের  পাতা  কাঁপছিল  !
#
শেষ  কালেতে  পথের  বাঁকে  রাস্তা  জুড়ে  দাঁড়িয়ে  থাকে
এক  পা  খোঁড়া  ভূতের  ঘোড়া  আমার  পিছু  ছুটছিল —
গেল – গেল  প্রাণ  যে  গেল , ভূতগুলো  সব  আমায়  খেল
স্বপ্ন  ভেঙে  তাকিয়ে  দেখি  ভোরের  সূর্য  উঠছিল  !!
****************************************************