কবি বিদ‌্যুৎ ভৌমিকের কবিতা নিয়ে আলোচনা

কবি বিদ‌্যুৎ ভৌমিকের কবিতা নিয়ে আলোচনা

এমডি আবু জাফর, বিশেষ প্রতিনিধিঃঃ

কবি~বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর কবিতা মেনেই “জাতকের গল্প” শোনার মতো

কবি বিদ্যুৎ~প্রসঙ্গেঃ কিছু আলোচনা ও তাঁর একটি বৈদিক কবিতা

কবিতা হোক কিম্বা অন্য কোনো রচনা , কবি বিদ্যুৎ
ভৌমিকের লেখা পড়তে পাওয়াই এক ভীষণ রকম
অভিজ্ঞতা ! পলকে মনস্ক পাঠকের অতলান্তে  ঢুকে
যান তিনি ! তাঁর ভাষার সুরঝংকৃত স্বকীয়তায় এই
সময়কার কবিতালোভা পাঠকসমাজ আবিষ্ট হয়ে
পড়ে ! প্রখ্যাত কবি সুভাষ মুখোপাধ্যায় এই বিখ্যাত
কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক প্রসঙ্গে বলেন ; এ সময়কার বেশ
নামজাদা তরুণ কবিদের মধ্যে বিদ্যুৎ ভৌমিক~ এর
কবিতা পড়তে আমার ভীষণ ভালো লাগে ! শুধুমাত্র
ভালোলাগা নয় , কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক তাঁর কবিতাকে
শিল্পের শৈলীদ্বারা নির্মাণ করেন , এই কারণে তাঁর
কবিতা আমার মতো অনেকেরই ভালোলাগার বিষয়
হয়ে দাঁড়িয়েছে ! ”
কবি সুভাষ মুখোপাধ্যায়ের এই উক্তি আজ বহুদিন
বাদে অক্ষরে অক্ষরে মিলে গেছে ! ভারতের  এই
কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক আজ বিশ্বের সমস্ত বাঙালি মনে
জায়গা করে নিয়েছেন ! আমি ক্যানাডার টরেন্টোর
একটি বিশেষ সংবাদ পত্রের বেতনভূক  সাংবাদিক ,
বেশ কয়েক বছর ধরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলি
জেলার শ্রীরামপুরের এই প্রখ্যাত ও জনপ্রিয় কবি
বিদ্যুৎ ভৌমিক-কে নিয়ে স্টাডি করে চলেছি , এবং
ইচ্ছে আছে কবি বিদ্যুৎ~কে নিয়ে একটা তথ্যচিত্র
তৈরি করার ! যাই হোক , আমি একটা কবিতা এই
বাংলাকথা-র জন্য নির্বাচন করে পাঠালাম !  সবাই
কবি বিদ্যুৎ ভৌমিক-এর কবিতাটি পাঠ করে মতামত
দেবেন **** “দৈনিক লন্ডন বাংলা” @

🔴 ~রাত সাক্ষী পাখিটার জন্য~ 🔴

                          🔵 ~বিদ্যুৎ ভৌমিক~ 🔵

উপায় ছিলনা ওষ্ঠ মিলনকে রুখা-শুখা করে নিতে
মনের বিলাপ কেবল ছিঁড়ে-ছিঁড়ে মৃত ছাল ,—
এমনই জীর্ণ বেহাল দিনকাল **** তবু স্বপ্নকে জেনে
বুঝে তোমার কাছে পাঠালেই দায়িত্ব মুক্ত হোত কী  ;
— প্রিয় নটী  ?
প্রায় চাক্ষুষ বৃষ্টি ঝরে টুস*** টাপুস ***
কান্না~কান্না গন্ধের প্রসাধন — এ যেন পরিষ্কার জল
প্রত্যন্ত সহজ-সরল — বাহির লাবণ্য ঘেরা কিছু কিছু
নির্ঘুম রোমাঞ্চ , নতুবা নিখোঁজ স্বপ্নের ভিতর
তোমাকে মাধ্যাকর্ষক থেকে গুলতি ছুঁড়ে ধীরে ধীরে
নীচে আরো বেশি বেশি নীচে নামানোর
অহর্নিশ কৌশল  ! বিশ্বাস নেই, — বুকের ভূমিকম্প
আমাকে নাড়াবে চঞ্চল অস্বস্তির ভিতর চড়ম এক
কাণ্ডজ্ঞানহীন , চোখের কটাক্ষ বাণে আত্মা আহত
হোতে-হোতে জানতে চাইবে তোমার ভুরুর জিজ্ঞাসা
পদ্মবনে কবিতার শব্দ ছায়াগুলো  ভাষা স্রোতে
শিখে নেবে ভ্রমরের প্রলয় নৃত্য —
এখানে কেউ কেউ আমার মতো হাসির মঞ্জরী মেখে
নিরীহ নিঃশ্বাসে বলে, —ভালোবাসি ***** সে  যেন
গোলাপ গন্ধ পেলে সবিনয়ে সাঁতরে যাবে এক  মুঠো
আঁধার জঠোরে — তাকিয়ে দেখি স্পন্দমান বুকের
ভিতর  ; এ-যে আমারই মন এবং নবীনতা
রাত সাক্ষী পাখিটার জন্য বিপন্ন ব্যস্ততা  !!                                                                                                                                                                                                                                      ===============================

( কাব্যগ্রন্থ~ কথা না রাখার কথা “— থেকে কবি
বিদ্যুৎ ভৌমিকের এই কবিতাটি নেওয়া হয়েছে )##

Categories: আন্তর্জাতিক,টপ নিউজ,তথ্য প্রযুক্তি,প্রধান নিউজ,বিনোদন,ভারত,মতামত বিশ্লেষণ,লাইফস্টাইল,শিল্প ও সাহিত্য,সম্পাদকীয়