শিক্ষার্থীদের মাঝে নৈতিকতাবোধ ও দেশপ্রেম জাগ্রত করতে হবে-মেহেরুন্নেছা বাহার

শিক্ষার্থীদের মাঝে নৈতিকতাবোধ ও দেশপ্রেম জাগ্রত করতে হবে-মেহেরুন্নেছা বাহার

কুমিল্লা প্রতিনিধি : কুমিল্লা ডায়াবেটিক সমিতি ও কুমিল্লা মহিলা সমিতির সভাপতি বিশিষ্ট নারীনেত্রী মিসেস মেহেরুন্নেছা বাহার বলেছেন, আজকের প্রজন্মের শিক্ষার্থীরাই গড়বে ২০৪১ সালের সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। তারাই একদিন সারা বিশ্বে ঘুরে ঘুরে বাংলাদেশের নেতৃত্ব দিবে। সারা পৃথিবীর বুকে দেশের মর্যাদা উজ্বল করবে। তাই শিক্ষার্থীদের মাঝে নৈতিকতাবোধ ও দেশপ্রেম জাগ্রত করতে হবে। আর একজন ভালো ছাত্র কিংবা মানুষ ভালো তৈরী করতে প্রয়োজন একজন ভালো শিক্ষক। আজকের দিনের শিক্ষকরা তাদেরকার সময়ের শিক্ষকদের কথা স্মরণ করলেই ভালো শিক্ষকের প্রতিচ্ছবি ভেসে উঠবে। সেক্ষেত্রে অভিভাবকদেরও দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে হবে। শিক্ষার্থীদের সাফল্য অর্জনে শিক্ষকদের পাশাপাশি অভিভাবকদের ভূমিকা রাখতে হবে। মনোহরপুর আদর্শ স্কুলটি একটি স্বতন্ত্র ধারার স্কুল। এ স্কুল অনান্য সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য অনুকরনীয় হতে পারে।

গতকাল শুক্রবার সকালে কুমিল্লা মহানগরীর ঐতিহ্যবাহী শিশু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মনোহরপুর আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা, পুরস্কার বিতরনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহারের সহধর্মেনী মিসেস মেহেরুন্নেছা বাহার এ কথা বলেন।

শুক্রবার সকাল ১০ টায় নগরীর কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যে দিয়ে জেলার শ্রেষ্ঠ শিশু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মনোহরপুর আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা, পুরস্কার বিতরনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে নগরীর বিশিষ্ট জন, বিপুল সংখ্যক অভিভাবক, প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে প্রাণের মিলনমেলায় পরিনত হয়। অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের ২০১৭ সালে প্রাথমিক বৃত্তি প্রাপ্ত ২৬ জন এবং নগরীর দুটি ঐতিহ্যবাহী সরকারি স্কুল কুমিল্লা জিলা স্কুল ও নবাব ফয়জুন্নেছা বালিকা বিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া সহ বিদ্যালয়ের ৪৭ জন কৃর্তি শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। মেধা পুরস্কার সহ বিভিন্ন সাংস্কৃতি প্রতিযোগীতায় বিজয়ী ১৭৯ জন শিক্ষার্থীর হাতে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিরা। সাংস্কৃতিক পর্বে বিদ্যালয়ের ক্ষুদে শিল্পীদের নৃত্যাভিনয়, কবিতা আবৃতি ,সংগীত,ফ্যাশন শো দর্শক শ্রোতাদের মুগ্ধ করে।
বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও মহানগর আওয়ামী লীগের উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাবীবুছ সাহেরীর সায়ের এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত,মহানগর যুবলীগের আহবায়ক ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মাহমুদ সহিদ, কুমিল্লা জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদা আক্তার, মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও সিটি কর্পোরেশনের ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবীবুর আল আমিন সাদী,উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো.দেলোয়ার হোসেন মজুমদার,বিদ্যালয় অভিভাবক কমিটির সভাপতি ও ভিক্টোরিয়া কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো.কবিরউদ্দিন আহামেদ। স্বাগত বক্তব্যে রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি সালেহা আক্তার।

স্বাগত বক্তব্যে বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক সালেহা আক্তার বলেন,সুশিক্ষা বিস্তারে কাজ করছে মনোহরপুর আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। আমাদের সকল প্রেরণার উৎস বীর মুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আরফানুল হক রিফাত বলেছেন , ২০৪১ সালের বাংলাদেশ গড়তে হল নতুন প্রজন্মকে উপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে। কুমিল্লার অভিভাবক হাজী এমপি একটি শ্লোগান আজ সারা দেশে আলোড়ন তুলেছে – কুমিল্লা এগুলেই এগুবে বাংলাদেশ। কুমিল্লাকে এগিয়ে নিতে হাজী বাহার এমপির নেতৃত্বে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহানগর যুবলীগের আহবায়ক আবদুল্লাহ আল মাহমুদ সহিদ বলেন, কুমিল্লাকে এগিয়ে নিতে আগামি নির্বাচনে হাজী বাহার এমপিকে তৃতীয় বারের মতো এমপি নির্বাচিত করতে হবে। শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কুমিল্লা জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদা আক্তার বলেন,কুমিল্লায় শিশু শিক্ষায় কিন্ডার গার্টেনগুলি যেভাবে জোয়ার তুলেছে সেই জোয়ারকে পেছনে ঠেলে নতুন জাগরন সৃষ্টি করেছে মনোহরপুর আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এটা অনান্য সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য অনুকরনীয় হতে পারে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিটি কর্পোরেশনের ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবীবুর আল আমিন সাদী বলেন, ২০৪১ সালের সুন্দর বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষার্থীদের মাঝে নৈতিকতাবোধ ও দেশপ্রেম জাগ্রত করতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো.দেলোয়ার হোসেন মজুমদার বলেন,বর্তমান সরকার শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নয়নে রেকর্ড পরিমান কাজ করেছে। প্রযুক্তি নির্ভর এ শিক্ষা ব্যবস্থা জাতিকে আলোর পথ দেখাবে। দেশকে এগিয়ে নিবে সমৃদ্ধির পথে।

সভাপতির বক্তব্যে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাবীবুছ সাহেরীর সায়ের শিক্ষকরা দেশপ্রেম,নৈতিকতাবোধ ও সততার সাথে কাজ করলে দেশে ভালো ছাত্রের পাশাপাশি ভালো মানুষ তৈরী হবে। তারাই একদিন জাতিকে নেতৃত্ব দিবে।

Categories: কুমিল্লা

Tags: