ঢাকা ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ ::
যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম আইএমও এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা’র আদর্শ বাস্তবায়ন তরুনদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে নড়াইল-১আসনে আবারো আ’লীগের মনোনয়ন পেলেন বিএম কবিরুল হক মুক্তি খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা ছিলেন বহুমাত্রিকগুনের অধিকারী : অধ্যাপক ড. এম শমসের আলী ফের নৌকার টিকিট পেলেন রাজী মোহাম্মদ ফখরুল পি‌রোজপু‌রে ফেজবু‌কে স্টাটার্স দি‌য়ে অনার্স পড়ুয়া ছা‌ত্রের আত্মহত্যা যেভাবে জানা যাবে এইচএসসির ফল > How to know HSC result নেত্রকোণা -২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ওমর ফারুক জনপ্রিয়তার শীর্ষে চাটখিলে যুবলীগের ৫১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত দিনব্যাপী গণসংযোগ করলেন নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শাহ্ কুতুবউদ্দিন তালুকদার রুয়েল

সাংবাদিকদের চাপে রেখে দুর্নীতিবাজরা নিরাপদে থাকে: বিএমএসএফ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:০৫:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ অক্টোবর ২০২১ ২২৮ বার পড়া হয়েছে
দেশের সময়২৪ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পাবনা, সোমবার, ১১ অক্টোবর, ২০২১: বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর বলেছেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি সংশোধণ করে সাংবাদিক বান্ধব করে প্রণয়ন করুন। আইনমন্ত্রী রোববার এক সাক্ষাতকারে আশ্বস্থ করেছেন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের দ্বারা সাংবাদিকদের হয়রানি কিংবা গ্রেফতার করা হবেনা।

আইনমন্ত্রীর এরুপ মন্তব্যের প্রতি বিএমএসএফ’র কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, আইনটির দ্বারা একদিকে যেমন সাংবাদিকদের কন্ঠরোধ করা হচ্ছে অন্যদিকে মামলার বেড়াজালে সর্বশান্ত করা হচ্ছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি প্রণয়নকাল থেকেই আমরা সংশোধনের দাবি করে আসছিলাম।

কিন্তু কে শোনে কার কথা! অর্থাৎ সাংবাদিকদের চাপে রাখাই যেন হচ্ছে মূলকথা। সাংবাদিকরা চাপে থাকলে দূর্ণীতিবাজরা নিরাপদ থাকে। কোন প্রকার বাঁধা ছাড়াই দূর্ণীতির মহোৎসব চালাতে কারো বাঁধা থাকেনা। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করতে চাইলে সাংবাদিকদের হয়রানি করে আদৌ সম্ভব হবেনা।

সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়ন করে অবিলম্বে আইডি নাম্বার প্রদান, সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা ও সাংবাদিক সুরক্ষা আইন প্রণয়নসহ ১৪ দফা দাবি মেনে নিতে সরকার ও গণমাধ্যমসমুহকে আন্তরিক হবার আহবান জানান। স্থানীয় রত্নদ্বীপ রিসোর্টের হলরুমে ১১ অক্টোবর বিকাল ৩টায় বিএমএসএফ পাবনা জেলা শাখার বর্ধিত সভায় তিনি একথা বলেছেন।

সংগঠনের পাবনা জেলা শাখার সভাপতি ডা. আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে উদ্বোধণী বক্তব্যে কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি সাঈদুর রহমান রিমন বলেছেন, সাংবাদিকতার বান্ধবহীন পরিবেশ সাংবাদিকদের অসহায় করে দিচ্ছে। চারপাশের বৈরী অবস্থার পাশাপাশি সাংবাদিকরাই যখন সাংবাদিকদের প্রধান শত্রু হয়ে উঠে তখন মনোবল হারিয়ে যায়, ঘৃণা জন্ম নেয়। পেশাদারিত্বের ক্ষেত্রে ভাটা পড়ে। এমন বৈরীতার অবসান চাই।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক আবুল খায়ের খান, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল কবির সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক এম. এ. আকরাম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোনালিসা মৌ, কেন্দ্রীয় সদস্য খালেকুজ্জামান পান্নু, পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান, রত্নদ্বীপ রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. সোহানী হোসেন, রানা গ্রুপের চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাস রানা প্রমুখ।

সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম। সভায় বিএমএসএফ’র ১৪ দফা দাবি আদায়ে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের পক্ষ থেকে একাত্মতা পোষণ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

সাংবাদিকদের চাপে রেখে দুর্নীতিবাজরা নিরাপদে থাকে: বিএমএসএফ

আপডেট সময় : ০৮:০৫:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ অক্টোবর ২০২১

পাবনা, সোমবার, ১১ অক্টোবর, ২০২১: বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর বলেছেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি সংশোধণ করে সাংবাদিক বান্ধব করে প্রণয়ন করুন। আইনমন্ত্রী রোববার এক সাক্ষাতকারে আশ্বস্থ করেছেন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের দ্বারা সাংবাদিকদের হয়রানি কিংবা গ্রেফতার করা হবেনা।

আইনমন্ত্রীর এরুপ মন্তব্যের প্রতি বিএমএসএফ’র কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, আইনটির দ্বারা একদিকে যেমন সাংবাদিকদের কন্ঠরোধ করা হচ্ছে অন্যদিকে মামলার বেড়াজালে সর্বশান্ত করা হচ্ছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি প্রণয়নকাল থেকেই আমরা সংশোধনের দাবি করে আসছিলাম।

কিন্তু কে শোনে কার কথা! অর্থাৎ সাংবাদিকদের চাপে রাখাই যেন হচ্ছে মূলকথা। সাংবাদিকরা চাপে থাকলে দূর্ণীতিবাজরা নিরাপদ থাকে। কোন প্রকার বাঁধা ছাড়াই দূর্ণীতির মহোৎসব চালাতে কারো বাঁধা থাকেনা। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করতে চাইলে সাংবাদিকদের হয়রানি করে আদৌ সম্ভব হবেনা।

সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়ন করে অবিলম্বে আইডি নাম্বার প্রদান, সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা ও সাংবাদিক সুরক্ষা আইন প্রণয়নসহ ১৪ দফা দাবি মেনে নিতে সরকার ও গণমাধ্যমসমুহকে আন্তরিক হবার আহবান জানান। স্থানীয় রত্নদ্বীপ রিসোর্টের হলরুমে ১১ অক্টোবর বিকাল ৩টায় বিএমএসএফ পাবনা জেলা শাখার বর্ধিত সভায় তিনি একথা বলেছেন।

সংগঠনের পাবনা জেলা শাখার সভাপতি ডা. আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে উদ্বোধণী বক্তব্যে কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি সাঈদুর রহমান রিমন বলেছেন, সাংবাদিকতার বান্ধবহীন পরিবেশ সাংবাদিকদের অসহায় করে দিচ্ছে। চারপাশের বৈরী অবস্থার পাশাপাশি সাংবাদিকরাই যখন সাংবাদিকদের প্রধান শত্রু হয়ে উঠে তখন মনোবল হারিয়ে যায়, ঘৃণা জন্ম নেয়। পেশাদারিত্বের ক্ষেত্রে ভাটা পড়ে। এমন বৈরীতার অবসান চাই।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক আবুল খায়ের খান, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল কবির সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক এম. এ. আকরাম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোনালিসা মৌ, কেন্দ্রীয় সদস্য খালেকুজ্জামান পান্নু, পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান, রত্নদ্বীপ রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. সোহানী হোসেন, রানা গ্রুপের চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাস রানা প্রমুখ।

সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম। সভায় বিএমএসএফ’র ১৪ দফা দাবি আদায়ে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের পক্ষ থেকে একাত্মতা পোষণ করেন।