ঢাকা ১০:৪২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ ::
যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম আইএমও এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা’র আদর্শ বাস্তবায়ন তরুনদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে নড়াইল-১আসনে আবারো আ’লীগের মনোনয়ন পেলেন বিএম কবিরুল হক মুক্তি খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা ছিলেন বহুমাত্রিকগুনের অধিকারী : অধ্যাপক ড. এম শমসের আলী ফের নৌকার টিকিট পেলেন রাজী মোহাম্মদ ফখরুল পি‌রোজপু‌রে ফেজবু‌কে স্টাটার্স দি‌য়ে অনার্স পড়ুয়া ছা‌ত্রের আত্মহত্যা যেভাবে জানা যাবে এইচএসসির ফল > How to know HSC result নেত্রকোণা -২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ওমর ফারুক জনপ্রিয়তার শীর্ষে চাটখিলে যুবলীগের ৫১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত দিনব্যাপী গণসংযোগ করলেন নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শাহ্ কুতুবউদ্দিন তালুকদার রুয়েল

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ১ লাখ ২৫ হাজার মোবাইল ফোন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৫৪:০৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর ২০২১ ২৬১ বার পড়া হয়েছে

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ১ লাখ ২৫ হাজার মোবাইল ফোন

দেশের সময়২৪ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডে’ন্টিটি রেজিস্টারে নিবন্ধিত না থাকায় বাংলাদেশ টেলি’কমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকাল থেকে অনিবন্ধিত নতুন মোবাইল হ্যান্ডসেট বন্ধ করতে শুরু করেছে। প্রথম তিন দিনে (১-৩ অক্টোবর) অ্যাকটিভ হয়েছে ৩ লাখ ৪৯ হাজার ৬৫২টি মোবাইল ফোন। একই সময়ে অবৈধ হওয়ায় বন্ধের তালিকায় পড়েছে ১ লাখ ২৫ হাজার মোবাইল ফোন।

১ অক্টোবর ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) সিস্টেমে সক্রিয় হয়েছে ১ লাখ ৩ হাজার ৯৮৯টি মোবাইল ফোন। এর মধ্যে অবৈধ ৩৭ হাজার ৬৬৩টি, বৈধ ৬৬ হাজার ৩২৬টি। ৩ অক্টোবর অ্যাকটিভ হয়েছে ১ লাখ ২২ হাজার ৫৮৮টি মোবাইল ফোন। এর মধ্যে অবৈধ ৪২ হাজার ৯৯৯টি মোবাইল ফোন, বৈধ ৭৯ হাজার ৫৮৯টি।বন্ধের তালিকায় থাকা মোবাইল ফোনে ইতিমধ্যে মেসেজ পাঠানো হয়েছে। এগুলো পর্যায়ক্রমে বন্ধ করে দেওয়া হবে। এসব ফোন অপারেটর ধরে ধরে বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি। এরই মধ্যে বন্ধ হয়েছে ৮১ হাজার ৮৬৮টি হ্যান্ডসেট।

এদিকে যারা বন্ধের ম্যাসেজ পেয়েছেন তারা যে দোকান থেকে মোবাইল ফোন কিনেছেন সেই দোকানে গিয়ে মোবাইলটি ফেরত দিতে পারেন অথবা টাকা ফেরত নিতে পারেন।

এ বিষয়ে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শহিদুল আলম বলেন, “যদি বিদেশ থেকে আনা কারও মোবাইল সেট বন্ধ হয়ে যায় তবে ফোনটির কাগজপত্র জমা দিলে আমরা তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখবো। যথার্থতা পেলে ফোনটি চালু করে দেওয়া হবে। আর যারা মোবাইল ফোন নিয়ে আসবেন তারা (www.neir.btrc.gov.bd) সাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন।”

সেট বৈধ না অবৈধ যাচাইয়ের পদ্ধতিঃ

ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD টাইপ করে স্পেস দিয়ে মোবাইলের ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে সেটি ১৬০০২ নম্বরে পাঠালে ফিরতি এসএমএসে আইএমইআই নম্বরটি বিটিআরসির ডাটাবেজে সংরক্ষিত আছে কিনা তা জানা যাবে। ফিরতি মেসেজে ডাটাবেজে সংরক্ষণের তথ্য থাকলে সেটি হবে বৈধ ফোন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ১ লাখ ২৫ হাজার মোবাইল ফোন

আপডেট সময় : ১২:৫৪:০৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর ২০২১

ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডে’ন্টিটি রেজিস্টারে নিবন্ধিত না থাকায় বাংলাদেশ টেলি’কমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকাল থেকে অনিবন্ধিত নতুন মোবাইল হ্যান্ডসেট বন্ধ করতে শুরু করেছে। প্রথম তিন দিনে (১-৩ অক্টোবর) অ্যাকটিভ হয়েছে ৩ লাখ ৪৯ হাজার ৬৫২টি মোবাইল ফোন। একই সময়ে অবৈধ হওয়ায় বন্ধের তালিকায় পড়েছে ১ লাখ ২৫ হাজার মোবাইল ফোন।

১ অক্টোবর ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) সিস্টেমে সক্রিয় হয়েছে ১ লাখ ৩ হাজার ৯৮৯টি মোবাইল ফোন। এর মধ্যে অবৈধ ৩৭ হাজার ৬৬৩টি, বৈধ ৬৬ হাজার ৩২৬টি। ৩ অক্টোবর অ্যাকটিভ হয়েছে ১ লাখ ২২ হাজার ৫৮৮টি মোবাইল ফোন। এর মধ্যে অবৈধ ৪২ হাজার ৯৯৯টি মোবাইল ফোন, বৈধ ৭৯ হাজার ৫৮৯টি।বন্ধের তালিকায় থাকা মোবাইল ফোনে ইতিমধ্যে মেসেজ পাঠানো হয়েছে। এগুলো পর্যায়ক্রমে বন্ধ করে দেওয়া হবে। এসব ফোন অপারেটর ধরে ধরে বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি। এরই মধ্যে বন্ধ হয়েছে ৮১ হাজার ৮৬৮টি হ্যান্ডসেট।

এদিকে যারা বন্ধের ম্যাসেজ পেয়েছেন তারা যে দোকান থেকে মোবাইল ফোন কিনেছেন সেই দোকানে গিয়ে মোবাইলটি ফেরত দিতে পারেন অথবা টাকা ফেরত নিতে পারেন।

এ বিষয়ে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শহিদুল আলম বলেন, “যদি বিদেশ থেকে আনা কারও মোবাইল সেট বন্ধ হয়ে যায় তবে ফোনটির কাগজপত্র জমা দিলে আমরা তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখবো। যথার্থতা পেলে ফোনটি চালু করে দেওয়া হবে। আর যারা মোবাইল ফোন নিয়ে আসবেন তারা (www.neir.btrc.gov.bd) সাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন।”

সেট বৈধ না অবৈধ যাচাইয়ের পদ্ধতিঃ

ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD টাইপ করে স্পেস দিয়ে মোবাইলের ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে সেটি ১৬০০২ নম্বরে পাঠালে ফিরতি এসএমএসে আইএমইআই নম্বরটি বিটিআরসির ডাটাবেজে সংরক্ষিত আছে কিনা তা জানা যাবে। ফিরতি মেসেজে ডাটাবেজে সংরক্ষণের তথ্য থাকলে সেটি হবে বৈধ ফোন।