ঢাকা ১০:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ ::
যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম আইএমও এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা’র আদর্শ বাস্তবায়ন তরুনদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে নড়াইল-১আসনে আবারো আ’লীগের মনোনয়ন পেলেন বিএম কবিরুল হক মুক্তি খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা ছিলেন বহুমাত্রিকগুনের অধিকারী : অধ্যাপক ড. এম শমসের আলী ফের নৌকার টিকিট পেলেন রাজী মোহাম্মদ ফখরুল পি‌রোজপু‌রে ফেজবু‌কে স্টাটার্স দি‌য়ে অনার্স পড়ুয়া ছা‌ত্রের আত্মহত্যা যেভাবে জানা যাবে এইচএসসির ফল > How to know HSC result নেত্রকোণা -২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ওমর ফারুক জনপ্রিয়তার শীর্ষে চাটখিলে যুবলীগের ৫১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত দিনব্যাপী গণসংযোগ করলেন নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শাহ্ কুতুবউদ্দিন তালুকদার রুয়েল

মামলা আদালতের বাইরে নিষ্পত্তি প্রিন্স অ্যান্ড্রু

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৩৩:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২২ ১৬৪ বার পড়া হয়েছে

মামলা আদালতের বাইরে নিষ্পত্তি প্রিন্স অ্যান্ড্রু

দেশের সময়২৪ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

হাকিকুল ইসলাম খোকনঃ ব্রিটেনের রাজ পরিবারের পদ-পদবি যৌন হয়রানির দায়ে আগেই হারিয়েছেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু। তিনি ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের দ্বিতীয় পুত্র। যুক্তরাষ্ট্রে যৌন হয়রানির মামলায় লড়ছিলেন তিনি। এবার সেই অভিযোগ থেকে আচমকাই রেহাই পেয়ে যাচ্ছেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু। ‘

মামলাটি আদালতের বাইরে নিষ্পত্তি হয়েছে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে। সম্প্রতি এক নারীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রে মামলার মুখোমুখি হন প্রিন্স অ্যান্ড্রু। তার বিরুদ্ধে করা মামলায় ভার্জিনিয়া জিউফ্রে নামে ওই নারী দাবি করেন, অ্যান্ড্রু ২০০১ সালে তাকে অপব্যবহার করেছিলেন, তখন তার বয়স ছিল ১৭ বছর। যদিও হুরু থেকেই ওই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু।

মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় বকালে যুক্তরাষ্ট্রের জেলা আদালতে দাখিল করা একটি নথির তথ্য বলছে, প্রিন্স অ্যান্ড্রু ও জিওফ্রে আদালতের বাইরে মামলাটি নিষ্পত্তি করেছেন। বিচারক লুইস এ কাপলানের কাছে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়, যৌন নির্যাতনের শিকার ভুক্তভোগীদের অধিকার রক্ষায় কাজ করা জিওফ্রের দাতব্য প্রতিষ্ঠানে ‘যথেষ্ট পরিমাণ অর্থ’ দেবেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু।

এতে আরও বলা হয়, প্রিন্স অ্যান্ড্রু কখনো জিওফ্রের চরিত্রে দাগ লাগাতে চাননি। যদিও তিনি স্বীকার করেন, জিওফ্রে নির্যাতনের পাশাপাশি মানুষের অন্যায় আক্রমণের শিকার হয়েছেন। কিন্তু প্রিন্স অ্যান্ড্রুর প্রতিনিধিরা বলেছেন, আদালতের বিবৃতির বাইরে তাদের এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য নেই।

উল্লেখ্য, শিশু-কিশোরীদের পাচার ও জোর করে যৌনদাসীর কাজ করানোর মতো গুরুতর অভিযোগে কারাবাসে ছিলেন মার্কিন ধনকুবের জেফরি এপস্টেইন। পরবর্তীকালে তিনি কারাগারেই মৃত্যুবরণ করেন। অভিযুক্ত এই ব্যক্তির সঙ্গে যুক্তরাজ্যের প্রিন্স অ্যান্ড্রুর সম্পৃক্ততার অভিযোগ ওঠে।

এপস্টেইনকে অনেকবারই দেখা গেছে প্রিন্স অ্যান্ডুর সঙ্গে। যদিও এখন প্রিন্স অ্যান্ড্রু মার্কিন ধনকুবের জেফরি এপস্টেইনের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতার জন্য অনুশোচনাও করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

মামলা আদালতের বাইরে নিষ্পত্তি প্রিন্স অ্যান্ড্রু

আপডেট সময় : ০১:৩৩:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২২

হাকিকুল ইসলাম খোকনঃ ব্রিটেনের রাজ পরিবারের পদ-পদবি যৌন হয়রানির দায়ে আগেই হারিয়েছেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু। তিনি ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের দ্বিতীয় পুত্র। যুক্তরাষ্ট্রে যৌন হয়রানির মামলায় লড়ছিলেন তিনি। এবার সেই অভিযোগ থেকে আচমকাই রেহাই পেয়ে যাচ্ছেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু। ‘

মামলাটি আদালতের বাইরে নিষ্পত্তি হয়েছে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে। সম্প্রতি এক নারীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রে মামলার মুখোমুখি হন প্রিন্স অ্যান্ড্রু। তার বিরুদ্ধে করা মামলায় ভার্জিনিয়া জিউফ্রে নামে ওই নারী দাবি করেন, অ্যান্ড্রু ২০০১ সালে তাকে অপব্যবহার করেছিলেন, তখন তার বয়স ছিল ১৭ বছর। যদিও হুরু থেকেই ওই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু।

মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় বকালে যুক্তরাষ্ট্রের জেলা আদালতে দাখিল করা একটি নথির তথ্য বলছে, প্রিন্স অ্যান্ড্রু ও জিওফ্রে আদালতের বাইরে মামলাটি নিষ্পত্তি করেছেন। বিচারক লুইস এ কাপলানের কাছে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়, যৌন নির্যাতনের শিকার ভুক্তভোগীদের অধিকার রক্ষায় কাজ করা জিওফ্রের দাতব্য প্রতিষ্ঠানে ‘যথেষ্ট পরিমাণ অর্থ’ দেবেন প্রিন্স অ্যান্ড্রু।

এতে আরও বলা হয়, প্রিন্স অ্যান্ড্রু কখনো জিওফ্রের চরিত্রে দাগ লাগাতে চাননি। যদিও তিনি স্বীকার করেন, জিওফ্রে নির্যাতনের পাশাপাশি মানুষের অন্যায় আক্রমণের শিকার হয়েছেন। কিন্তু প্রিন্স অ্যান্ড্রুর প্রতিনিধিরা বলেছেন, আদালতের বিবৃতির বাইরে তাদের এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য নেই।

উল্লেখ্য, শিশু-কিশোরীদের পাচার ও জোর করে যৌনদাসীর কাজ করানোর মতো গুরুতর অভিযোগে কারাবাসে ছিলেন মার্কিন ধনকুবের জেফরি এপস্টেইন। পরবর্তীকালে তিনি কারাগারেই মৃত্যুবরণ করেন। অভিযুক্ত এই ব্যক্তির সঙ্গে যুক্তরাজ্যের প্রিন্স অ্যান্ড্রুর সম্পৃক্ততার অভিযোগ ওঠে।

এপস্টেইনকে অনেকবারই দেখা গেছে প্রিন্স অ্যান্ডুর সঙ্গে। যদিও এখন প্রিন্স অ্যান্ড্রু মার্কিন ধনকুবের জেফরি এপস্টেইনের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতার জন্য অনুশোচনাও করেন।