ঢাকা ০৫:৪৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ ::
যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম আইএমও এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা’র আদর্শ বাস্তবায়ন তরুনদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে নড়াইল-১আসনে আবারো আ’লীগের মনোনয়ন পেলেন বিএম কবিরুল হক মুক্তি খানবাহাদুর আহ্ছানউল্লা ছিলেন বহুমাত্রিকগুনের অধিকারী : অধ্যাপক ড. এম শমসের আলী ফের নৌকার টিকিট পেলেন রাজী মোহাম্মদ ফখরুল পি‌রোজপু‌রে ফেজবু‌কে স্টাটার্স দি‌য়ে অনার্স পড়ুয়া ছা‌ত্রের আত্মহত্যা যেভাবে জানা যাবে এইচএসসির ফল > How to know HSC result নেত্রকোণা -২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ওমর ফারুক জনপ্রিয়তার শীর্ষে চাটখিলে যুবলীগের ৫১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত দিনব্যাপী গণসংযোগ করলেন নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শাহ্ কুতুবউদ্দিন তালুকদার রুয়েল

নারীদের জন্য সবচেয়ে অনিরাপদ শহর দিল্লি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:১৩:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ অগাস্ট ২০২২ ১৯৪ বার পড়া হয়েছে

নারীদের জন্য সবচেয়ে অনিরাপদ শহর দিল্লি

দেশের সময়২৪ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

হাকিকুল ইসলাম খোকন, যুক্তরাষ্ট্র সিনিয়র প্রতিনিধিঃ ভারতের রাজধানী দিল্লিতে গত বছর প্রত্যেক দিন গড়ে অন্তত দু’জন নাবালিকা ধর্ষণের শিকার হয়েছে। দেশটির মেট্রোপলিটন শহরগুলোর মধ্যে দিল্লিই নারীদের জন্য সবচেয়ে অনিরাপদ শহর। মঙ্গলবার ভারতের ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর (এনসিআরবি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে।

এতে বলা হয়েছে, গত বছর দিল্লিতে নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের ঘটনায় ১৩ হাজার ৮৯২টি মামলা হয়েছে। যা আগের বছরের তুলনায় ৪০ শতাংশ বেশি। ২০২০ সালে দিল্লিতে নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের ৯ হাজার ৭৮২টি মামলা দায়ের হয়েছিল।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজধানী দিল্লিতে গত বছর প্রতিদিন দু’জন করে নাবালিকা ধর্ষণের শিকার হয়েছে। দেশটির মহানগরগুলোর মধ্যে দিল্লিই নারীদের জন্য সবচেয়ে অনিরাপদ। দিল্লিতে ২০২১ সালে নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের ঘটনায় ১৩ হাজার ৮৯২টি মামলা হয়েছে। আগের বছর এ সংখ্যা ছিল ৯ হাজার ৭৮২।

এক বছরের ব্যবধানে মামলার সংখ্যা ৪০ শতাংশের বেশি বেড়েছে।এনসিআরবির তথ্য অনুযায়ী, নারীদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধে ১৯টি মহানগরীতে হওয়া মোট মামলার ৩২ দশমিক ২০ শতাংশই দিল্লিতে নথিবদ্ধ হয়েছে। এসব মহানগরে গত বছর এ ধরনের মোট মামলা হয়েছে ৪৩ হাজার ৪১৪।

নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটনে দিল্লির পরই রয়েছে অর্থনৈতিক রাজধানী হিসেবে পরিচিত মুম্বাই। এ ধরনের ৫ হাজার ৫৪৩টি মামলা হয়েছে এ শহরে। তৃতীয় স্থানে থাকা বেঙ্গালুরুতে হয়েছে ৩ হাজার ১২৭টি মামলা। মোট ১৯টি মহানগরীতে হওয়া এ ধরনের মামলার ১২ দশমিক ৭৬ শতাংশ নথিবদ্ধ হয়েছে মুম্বাইয়ে। আর বেঙ্গালুরুতে হয়েছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ মামলা।

এদিকে এনসিআরবির রিপোর্ট বলছে, কলকাতার প্রতি লাখ জনসংখ্যার মধ্যে দেশের বাকি শহরের তুলনায় সবচেয়ে কম অপরাধের ঘটনা ঘটেছে। এর ভিত্তিতেই সবচেয়ে নিরাপদ শহরের তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে কলকাতার নাম। কলকাতায় প্রতি লাখ মানুষে নথিভুক্ত অপরাধ ১০৩.৪। এই সংখ্যা গত বছরের তুলনায় আরও কমেছে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ১২৯.৫।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

নারীদের জন্য সবচেয়ে অনিরাপদ শহর দিল্লি

আপডেট সময় : ০৫:১৩:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ অগাস্ট ২০২২

হাকিকুল ইসলাম খোকন, যুক্তরাষ্ট্র সিনিয়র প্রতিনিধিঃ ভারতের রাজধানী দিল্লিতে গত বছর প্রত্যেক দিন গড়ে অন্তত দু’জন নাবালিকা ধর্ষণের শিকার হয়েছে। দেশটির মেট্রোপলিটন শহরগুলোর মধ্যে দিল্লিই নারীদের জন্য সবচেয়ে অনিরাপদ শহর। মঙ্গলবার ভারতের ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর (এনসিআরবি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে।

এতে বলা হয়েছে, গত বছর দিল্লিতে নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের ঘটনায় ১৩ হাজার ৮৯২টি মামলা হয়েছে। যা আগের বছরের তুলনায় ৪০ শতাংশ বেশি। ২০২০ সালে দিল্লিতে নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের ৯ হাজার ৭৮২টি মামলা দায়ের হয়েছিল।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজধানী দিল্লিতে গত বছর প্রতিদিন দু’জন করে নাবালিকা ধর্ষণের শিকার হয়েছে। দেশটির মহানগরগুলোর মধ্যে দিল্লিই নারীদের জন্য সবচেয়ে অনিরাপদ। দিল্লিতে ২০২১ সালে নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের ঘটনায় ১৩ হাজার ৮৯২টি মামলা হয়েছে। আগের বছর এ সংখ্যা ছিল ৯ হাজার ৭৮২।

এক বছরের ব্যবধানে মামলার সংখ্যা ৪০ শতাংশের বেশি বেড়েছে।এনসিআরবির তথ্য অনুযায়ী, নারীদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধে ১৯টি মহানগরীতে হওয়া মোট মামলার ৩২ দশমিক ২০ শতাংশই দিল্লিতে নথিবদ্ধ হয়েছে। এসব মহানগরে গত বছর এ ধরনের মোট মামলা হয়েছে ৪৩ হাজার ৪১৪।

নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটনে দিল্লির পরই রয়েছে অর্থনৈতিক রাজধানী হিসেবে পরিচিত মুম্বাই। এ ধরনের ৫ হাজার ৫৪৩টি মামলা হয়েছে এ শহরে। তৃতীয় স্থানে থাকা বেঙ্গালুরুতে হয়েছে ৩ হাজার ১২৭টি মামলা। মোট ১৯টি মহানগরীতে হওয়া এ ধরনের মামলার ১২ দশমিক ৭৬ শতাংশ নথিবদ্ধ হয়েছে মুম্বাইয়ে। আর বেঙ্গালুরুতে হয়েছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ মামলা।

এদিকে এনসিআরবির রিপোর্ট বলছে, কলকাতার প্রতি লাখ জনসংখ্যার মধ্যে দেশের বাকি শহরের তুলনায় সবচেয়ে কম অপরাধের ঘটনা ঘটেছে। এর ভিত্তিতেই সবচেয়ে নিরাপদ শহরের তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে কলকাতার নাম। কলকাতায় প্রতি লাখ মানুষে নথিভুক্ত অপরাধ ১০৩.৪। এই সংখ্যা গত বছরের তুলনায় আরও কমেছে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ১২৯.৫।